শনিবার ২ মার্চ ২০২৪
চাঁদের মাটিতে তামাক গাছ উৎপাদন!
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশ: শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২৩, ৩:১৩ পিএম
চাঁদকে মানুষের বসবাস উপযোগী করে তুলতে গাছ উৎপাদনের নতুন উপায় খুজার কোনো বিকল্প নেই। এই বিষয়টিকে মাথায় রেখেই বিজ্ঞানীরা ব্যাকটেরিয়ার সাহায্যে চাঁদের মাটির উর্বরতা বাড়াতে বিভিন্ন গবেষণা করছেন। 

চীনা এক গবেষক দচীনা এক গবেষক দল তিনটি পৃথক ব্যাকটেরিয়াকে একত্রিত করে সেগুলোকে চাঁদের মাটির ওপর পরীক্ষা করে, যেখানে ব্যাকটেরিয়াগুলোর মাধ্যমে চাঁদে গাছ উৎপাদন সম্ভব কি না, তা যাচাই করা হয়।

এ পরীক্ষার ফলাফলে দেখা যায়, চাঁদ থেকে সংগ্রহ করা উপাদানের উর্বরতা নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। চাঁদের মাটির সাথে তিন ব্যাকটেরিয়া যোগ করে ‘বেন্থ’ নামের এক প্রজাতির তামাক গাছ উৎপাদন করেছেন গবেষকরা।

ব্যাকটেরিয়াগুলো কাজ করে মাটিতে ফসফরাসের পরিমাণ বাড়ানোর মাধ্যমে। এটি গাছের জন্য বড় পুষ্টিগুণ হিসেবে কাজ করে। এর মানে, গাছগুলো আরও সহজে ও বিস্তৃত পরিসরে জন্মাতে পারবে। 

এর আগের বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, চাঁদের মাটিতে শাক উৎপাদন সম্ভব হলেও অন্যান্য গাছ উৎপাদন করা জটিল। সেসব গবেষণায় আরও দেখা যায়, চাঁদের মাটির গুণগত মান ভূপৃষ্ঠে থাকা আগ্নেয়গিরির ছাইয়ের চেয়েও বাজে। এছাড়া চাঁদের মাটিতে নাইট্রোজেনও কম, যা গাছ উৎপাদনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর মধ্যে থাকা ফসফরাসও গাছের জন্য ব্যবহারযোগ্য নয়।

ব্রিটিশ সংবাদপত্র ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মানুষ চাঁদে বাস করতে চাইলে বিজ্ঞানীদের গাছ উৎপাদনের নতুন উপায় খুঁজে দেখতে হবে। এজন্য প্রয়োজন চাঁদের মাটির গুণগত মান উন্নত করা। গবেষকরা পরামর্শ দিয়েছেন, এ ব্যাকটেরিয়াত্রয়ীর ব্যবহার ওই যুগান্তকারী লক্ষ্যমাত্রার জন্য বড় পদক্ষেপ হতে পারে।

ও দেখা যায়, চাঁদের মাটির গুণগত মান ভূপৃষ্ঠে থাকা আগ্নেয়গিরির ছাইয়ের চেয়েও বাজে। এছাড়া চাঁদের মাটিতে নাইট্রোজেনও কম, যা গাছ উৎপাদনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর মধ্যে থাকা ফসফরাসও গাছের জন্য ব্যবহারযোগ্য নয়।

ব্রিটিশ সংবাদপত্র ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মানুষ চাঁদে বাস করতে চাইলে বিজ্ঞানীদের গাছ উৎপাদনের নতুন উপায় খুঁজে দেখতে হবে। এজন্য প্রয়োজন চাঁদের মাটির গুণগত মান উন্নত করা। গবেষকরা পরামর্শ দিয়েছেন, এ ব্যাকটেরিয়াত্রয়ীর ব্যবহার ওই যুগান্তকারী লক্ষ্যমাত্রার জন্য বড় পদক্ষেপ হতে পারে। তাছাড়া গবেষকরা জানান যে মৃত ব্যাকটেরিয়া যুক্ত মাটির তুলনায় ব্যাকটেরিয়া যুক্ত মাটিতে উৎপাদিত গাছগুলোর মধ্যে ক্লোরোফিলের মাত্রা ১০৪ শতাংশ বেশি। এই বিশেষ উদ্দীপকের সহায়তায় জন্মানো গাছগুলোতে ছয় দিনের মধ্যেই লম্বা কান্ড ও শেকড় দেখা গেছে।

/এমএ/

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






● সর্বশেষ সংবাদ  
● সর্বাধিক পঠিত  
এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ  
অনুসরণ করুন
     
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : লুৎফর রহমান হিমেল
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬, মোবাইল: ০১৪০৪-৪৯৯৭৭২। ই-মেইল : e-mail: swadeshnewsbd24@gmail.com, info@swadeshpratidin.com
● স্বদেশ প্রতিদিন   ● বিজ্ঞাপন   ● সার্কুলেশন   ● শর্তাবলি ও নীতিমালা   ● গোপনীয়তা নীতি   ● যোগাযোগ
🔝