রোববার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১ আশ্বিন ১৪২৮

দৌলতদিয়া পারের অপেক্ষায় শত শত বাস
জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২২ জুলাই, ২০২১, ৩:৪৬ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

দৌলতদিয়া পারের অপেক্ষায় শত শত বাস

দৌলতদিয়া পারের অপেক্ষায় শত শত বাস

পরিবারের সঙ্গে ঈদ করে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের কর্মজীবী মানুষ ঢাকায় ফিরতে শুরু করেছেন। বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) সকাল থেকে তাই ভিড় বাড়তে শুরু করেছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে। ২৩ জুলাই থেকে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন ঘোষণা করায় রাজধানী ফিরতে শুরু করেছে মানুষ।

অন্যদিকে ঈদপরবর্তী আত্মীয়স্বজনের কাছে ফিরতে রাজধানী থেকে অনেকে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের দিকে ছুটছে। মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাট থেকে ছেড়ে আসা প্রতিটি ফেরিতে এখনো ভিড় দেখা যাচ্ছে। একদিকে যেমন রাজধানীগামী মানুষের ভিড় ধীরে ধীরে বাড়ছে, অন্যদিকে নদী পাড়ি দিয়ে আসা অনেক মানুষ এসে ঘাটে নামছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত দুই কিমি এলাকায় নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় ২০০ যাত্রীবাহী বাস। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে করতে প্রচণ্ড গরমে যাত্রীরা অতিষ্ঠ হয়ে যাচ্ছে। অনেকে গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। শিশুসন্তান নিয়ে বিপাকে পড়েছে তাদের বাবা-মা। এ ছাড়া দৌলতদিয়া বাইপাস সড়ক এলাকায় ছোট ব্যক্তিগত যানবাহনের কিছুটা চাপ রয়েছে।

গার্মেন্টস কর্মী আজিজুল শেখ ঈদের আগের দিন খোকসাই গ্রামের বাড়িতে যান ঈদ করতে। দৌলতদিয়া ঘাটে আলাপকালে তিনি বলেন, পরিবারের সঙ্গে ঈদ শেষ করে আজ সাতসকালেই ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছিলাম। দৌলতদিয়া ঘাটে এসে সিরিয়ালে আটকে আছি। প্রচণ্ড গরমে বাচ্চাদের নিয়ে গরমে অতিষ্ঠ হয়ে যাচ্ছি। একটু একটু করে ফেরিঘাটের দিকে এগোচ্ছি। ফেরির নাগাল কবে পাব জানি না।

সুমন রহমান নামের একজন পরিবার নিয়ে ব্যক্তিগত গাড়িতে করে ঢাকায় যাচ্ছেন। তিনি বলেন, পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে ঈদের দুই দিন আগে ঢাকা থেকে রওনা করে অনেক ঝক্কি-ঝামেলা পোহাতে হয়েছিল। চার ঘণ্টার রাস্তা আসতে সময় লেগেছিল এক দিন। এখন কর্মজীবী মানুষ আবারও ঢাকামুখী হবেন। আগামীকাল থেকে ১৪ দিনের লকডাউন, তাই আজই ঢাকাই রওনা হয়েছি।

নারুয়া থেকে আসা ঢাকাগামী সূবর্ণ পরিবহনের চালক আলিম মাতুব্বর ঢাকা পোস্টকে বলেন, ঘাট এলাকায় এসে ২ ঘণ্টা সিরিয়ালে দাঁড়িয়ে আছি। ঘাট কর্তৃপক্ষ বলছে, ১৬টি ফেরি চলছে। কিন্তু যতটুকু জানতে পেরেছি এই রুটে ১০টি ফেরি চলছে। তাই গাড়ির এই দীর্ঘ সারি তৈরি হয়ছে। ফেরি সংখ্যা বাড়লে এই চাপ থাকবে না বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয়ের ব্যবস্থাপক মো. শিহাব উদ্দিন ঢাকা পোস্টকে বলেন, ঈদে বাড়ি পর্যন্ত যাইনি। মানুষের সেবা দিতেই এখনো কর্মস্থলে আছি। ঈদ-পরবর্তী যানবাহন ও যাত্রী পারাপার নির্বিঘ্ন করতে ১৬টি ফেরির সব কটি সচল রাখা হয়েছে।

ফেরির সংখ্যা কম, এমন অভিযোগের কথা জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করে বলেন, এই রুটে ঈদের আগেও ১৬টি ফেরি চলাচল করে আসছিল, এখনো সেই ১৬টি চলছে। আগামীকাল থেকে লকডাউন। তাই ঢাকাগামী দূরপাল্লার বাসের চাপ বেড়েছে। এ ছাড়া নদীতে তীব্র স্রোতের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। তাই ঘাট এলাকায় বাসের দীর্ঘ সারি তৈরি হয়েছে।

স্বদেশ প্রতিদিন/নিশাদ

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: +৮৮০২-৮৮৩২৬৮৪-৬। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।