বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১ ১৩ শ্রাবণ ১৪২৮

সাজগোজে এগিয়েছে পুরুষেরা
স্বদেশ ডেস্ক :
প্রকাশ: শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১, ৮:৩৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

সংগৃহীত ছবি

সংগৃহীত ছবি

নিজেদের পরিপাটি ও সুন্দর রাখতে সাজগোজে এগিয়েছে পুরুষেরা। এমনকি ব্যাপকহারে প্রসাধনী কিনছে তারা। এতে প্রসাধনী কেনার ধুম পড়েছে বাজারে। বিশেষ করে ত্বক এবং চুলের যত্নে আরও আগ্রহী হয়ে উঠছেন পুরুষেরা। সম্প্রতি জার্মানিতে হওয়া এক গবেষণায় উঠে এসেছে এমনই তথ্য।

জার্মানির কসমেটিক্স অ্যান্ড ডিটারজেন্ট ইন্ডাস্ট্রি এই গবেষণা চালায়। তাদের গবেষণায় দেখা গেছে, শতকরা ৬০ জনেরও বেশি পুরুষের কাছে ত্বক এবং চুলের সৌন্দর্য চর্চা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর ৫৫ শতাংশ মনে করেন সুন্দর পরিষ্কার নখ মানুষের আত্মমর্যাদা বৃদ্ধিতে সহায়ক।

অনলাইনে হওয়া এই সমীক্ষাটিতে অংশ নেয় মোট এক হাজার পুরুষ।

ফ্র্যাঙ্কফুর্টের বডি কেয়ার অ্যান্ড ডিটারজেন্ট ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশনের মতে, তাদের প্রসাধনীর জন্য পুরুষদের কসমেটিক্স বিভাগটি একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ।

পুরুষদের প্রসাধনী নিয়ে একটি কোম্পানির উপপরিচালক বির্গিট হুবার বলেন, 'আমরা দেখছি পুরুষেরা ইদানিং প্রসাধনী সম্পর্কে আরও বেশি উত্সাহী হয়ে উঠেছে। এমনকি কোনো কোনো পুরুষ সেলিব্রেটি লাল গালিচায় তাদের নেলপালিশ লাগানো হাতও দেখিয়ে থাকেন।'

মেয়েদের ত্বকের চেয়ে পুরুষদের ত্বক শতকরা ২০ ভাগ পুরু এবং অনেক বেশি তৈলাক্ত। পুরুষদের শরীরে চুল অনেক বেশি এবং ঘন। পুরুষদের চুল সাধারণত তাড়াতাড়ি তেলতেলে ও খুশকিপূর্ণ হয়ে যায়। তাই তো পুরুষদের সৌন্দর্যচর্চাও আলাদা।

স্বদেশ প্রতিদিন/এস

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।