বুধবার ১২ মে ২০২১ ২৯ বৈশাখ ১৪২৮

আইএমএফের বার্তা
২০২১ সালে ভারতে ১১.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশ: বুধবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২১, ৫:৪০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

সংগৃহীত ছবি।

সংগৃহীত ছবি।

২০২১ সালে ভারতের জন্য সুদিন আসছে। আইএমএফ বার্তা দিয়েছে ১১.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে দেশে। করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে ২০২০ সাল বিশ্বের একমাত্র প্রধান অর্থনীতি হিসাবে চিহ্নিত করেছে। মঙ্গলবার প্রকাশিত সর্বশেষ বিশ্ব অর্থনীতির আপডেটে ভারতের জন্য এই সুখবর দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের প্রবৃদ্ধি অর্থনীতির একটি শক্তিশালী প্রত্যাবর্তন প্রতিফলিত করেছে। মহামারীর কারণে ২০২০ সালে আট শতাংশ কমেছে প্রবৃদ্ধি। আইএমএফ তার সর্বশেষ আপডেটে, ২০২১ সালে ভারতের জন্য ১১.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছে। ২০২১ সালে দুই অঙ্কের প্রবৃদ্ধিতে পৌঁছে ভারতকে বিশ্বের একমাত্র প্রধান অর্থনীতি হিসাবে পরিণত করতে পারে।

২০২১ সালে চিনে 8.১ শতাংশ, স্পেনে ৫.৯ শতাংশ এবং ফ্রান্সে ৫.৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বভাস দিয়েছে আইএমএফ। এই পরিসংখ্যান সংশোধন করে আইএমএফ বলেছে যে, ২০২০ সালে ভারতীয় অর্থনীতি আট শতাংশ কমেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। চিন একমাত্র দেশ যা ২০২০ সালে ২.৩ শতাংশের ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি নিবন্ধন করেছে।

আইএমএফ জানিয়েছে, ভারতের অর্থনীতি ২০২২ সালে ৬.৮ শতাংশ এবং চিনের অর্থনীতি ৫.৬ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সর্বশেষতম অনুমানের সাহায্যে, ভারত বিশ্বের দ্রুত বিকাশমান অর্থনীতির ট্যাগটি পুনরায় অর্জন করতে চলেছে বলেই ধারণা। মুদ্রা নীতি ও রাজস্ব নীতিমালার বিষয়ে ভারত সরকার যে পদক্ষেপ নিয়েছে তা প্রশংসিত হচ্ছে। 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।