শুক্রবার ৫ মার্চ ২০২১ ২০ ফাল্গুন ১৪২৭

তিতুমীরের শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে নতুন ভবণ ও নান্দনিক পার্ক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশ: বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২১, ৪:৫৯ পিএম আপডেট: ২৫.০১.২০২১ ১১:৫৩ এএম | অনলাইন সংস্করণ

তিতুমীরের শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে নতুন ভবণ ও নান্দনিক পার্ক

তিতুমীরের শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে নতুন ভবণ ও নান্দনিক পার্ক

রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থীরা পাচ্ছে এক নতুন ভবন ও নান্দনিক পার্ক। এমনটাই নিশ্চিত করেছেন সরকারি তিতুমীর কলেজের উপাধ্যক্ষ ড.মোসাঃ আবেদা সুলতানা। 

তিনি জানান, বুধবার কলেজ প্রশাসনকে না জানিয়ে রাজউক তাদের আঞ্চলিক অফিসের পাশে তিতুমীর কলেজ ছাত্রাবাসের সামনের দেয়ালটি ভেঙে ফেলে। এতে শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। সে বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে কলেজ প্রশাসনের সাথে কথা বলতে এসে রাজউক এর প্রজেক্ট ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার আবদুল লতিফ হেলালি নতুন ভবন ও নান্দনিক পার্কের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন তিতুমীর কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রিপন মিয়া ও সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক জুয়েল মোড়ল।

এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে রাজউক এর প্রজেক্ট ডিরেক্টর ইঞ্জিনিয়ার আবদুল লতিফ হেলালি জানান, সারা ঢাকাজুড়ে আমরা ৫ হাজার ভবনকে এসএসডি করে ঝুঁকিপূর্ণ কি না পরিক্ষা করছি। তারই আওতায় আমরা তিতুমীর কলেজকেও রেখেছি। আমরা কলেজ প্রশাসনের মাধ্যমে জানতে পারি সরকারি তিতুমীর কলেজের বিজ্ঞান ভবণটি বেশ পুরোনো। আমরা এসএসডি করে দেখবো ভবণটি কতটা ঝুঁকিপূর্ণ। যদি পুরোপুরি ঝুঁকিপূর্ণ হয় তাহলে ওয়াল্ড ব্যাংকের আওতায় আমরা অনেক কাজ করে থাকি। সেখানে ওয়ার্ড ব্যাংকের প্রকল্পের মাধ্যমে আমরা এই ভবণটিকে আরও বড় করে মাল্টিস্টোরি বিল্ডিং করে দেওয়া হবে। আর যদি কম ঝুঁকিপূর্ণ হয় তাহলে অত্যান্ত নিখুঁদ ভাবে ভবণটি রিপারিং করে দেওয়া হবে।

ভবণটি কবে নাগাদ পরিক্ষা হবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত তিন বছর আগ থেকে আমরা ঢাকার ৫ হাজার ভবণ এসএসসি করার কাজ শুরু করেছি। এটি আমাদের প্রকল্পের আওতায় আছে। যে কোন সময় পরিক্ষা করা হতে পারে। 

এছাড়াও নান্দনিক পার্ক সম্পর্কে তিনি বলেন, ২০১৪ সালের ২২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ‘ঢাকাস্থ মহাখালীতে বহুতল গ্রিন অফিস ভবন নির্মাণ’ প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

প্রকল্পটির মাধ্যমে প্রায় ৮০১ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রথমে তিতুমীর কলেজের পাশে রাজউকের মহাখালী কম্পাউন্ডের পূর্বাংশে একটি বহুতল ভবন নির্মাণের কথা ছিল।

কিন্তু প্রধানমন্ত্রী রাজউক চেয়ারম্যানকে তিতুমীর কলেজের পাশে না করে অন্য কোনো জায়গায় পরিবেশবান্ধব ও সবুজ পার্কসহ ওই ভবনটি নির্মাণ করার নির্দেশ দেন। বর্তমানে সে জায়গাটি খালি রয়েছে। সেটাকে রাজউক একটি সুদর্শন মাঠে রুপান্তরিত করে নান্দনিক পার্ক গড়ে তুলবে। 

তিতুমীর কলেজ ছাত্রবাসের পাশের দেয়াল কেন ভাঙা হলো এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, আসলে রাজউক এর মহাখালী আঞ্চলিক যে অফিস রয়েছে সেখানে আমাদের একটি ল্যাবরেটরি বিল্ডিং হবে। মূল গেইটটি ছোট হওয়ায় সেখানে গাড়ি চলাচলে নানা বিগ্নতা ঘটছে। তাই দেওয়ালের যে অংশটি ভাঙা হয়েছে সেখানে একটি গেইট নির্মান করা হবে। এটা নিয়ে শিক্ষার্থীদের উদ্বীগ্ন না হওয়ার আহ্বান জানান তিনি। 

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।