বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ ১৩ মাঘ ১৪২৭

দলীয় মনোনয়ন পেতে সম্ভাব্য প্রার্থীদের লবিং
নির্বাচনী ডামাডোল তৃণমূল বিএনপিতে
বিদ্রোহী প্রার্থী হলে বহিষ্কারসহ কঠোর ব্যবস্থা, নির্বাচনী এলাকায় প্রচার-প্রচারণা চলছে
এম উমর ফারুক
প্রকাশ: শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৫৪ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নির্বাচন মানেই বিএনপি প্রার্থীর নিশ্চিত পরাজয়। আবার নির্বাচন ঘিরে মামলা, হামলা, নির্যাতন হয়রানি বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গী। সম্প্রতি ঢাকা ১৮ আসনের উপনির্বাচনকে ঘিরে রাজধানীতে বাস পোড়ানোর মামলায় জামিন পেয়েছেন বিএনপির অর্ধেক নেতারা। বাকি অর্ধেক নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রেপ্তার আতঙ্ক কাটেনি। এরই মধ্যে প্রথম ধাপে ২৫ পৌরসভার নির্বাচনের মাঠে নামছে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থীরা। ক্ষমতাসীন সরকার ও এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে নির্বাচনে আগ্রহ নেই নেতাকর্মীদের। তবে, নির্বাচনের ফলাফল যা-ই হোক দলটির টার্গেট তৃণমূলকে চাঙ্গা করা। সুষ্ঠু ভোটের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে দলটির প্রশ্ন থাকলেও ফাঁকা মাঠে গোল দিতে দেবে না বিএনপি। তাই বিভিন্ন পৌরসভা নির্বাচনের জন্য প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়াও শুরু করেছেন দলের শীর্ষ নেতারা। এক্ষেত্রে তৃণমূলের মতামত নিয়ে বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ঠিক করতে স্থানীয় নেতাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রতিটি জেলা, উপজেলা ও পৌরসভার সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং আহ্বায়কদের উদ্দেশে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। 

বিএনপির দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে প্রার্থী চূড়ান্ত করার পরও কেউ বিদ্রোহী হলে তার বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাকে দল থেকে বহিষ্কারও করা হতে পারে; কিন্তু গুটিকয়েক পৌরসভা ছাড়া অন্যান্য স্থানে নির্বাচন নিয়ে এখনো নির্বাচনী সরগরম শুরু হয়নি। তৃণমূলে পাঠানো বিএনপির নির্দেশনায় বলা হয়েছে- প্রার্থীদের সুপারিশে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর আবেদন, জাতীয় পরিচয়পত্র, হালনাগাদ ভোটার তালিকাসহ মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখের পাঁচ কার্যদিবস আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে পাঠাতে হবে। পৌরসভা প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে জেলা-উপজেলা বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক অথবা আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব অথবা সিনিয়র যুগ্ম সচিব এবং পৌরসভা-ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক অথবা আহ্বায়ক, সদস্য সচিব অথবা সিনিয়র যুগ্ম সচিব ও ২নং যুগ্ম সচিবকে আলোচনাক্রমে লিখিত সুপারিশ করতে বলা হয়েছে। এই সুপারিশের ভিত্তিতে কেন্দ্র থেকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হবে। কোথাও এ পাঁচজন ঐকমত্যে পৌঁছতে না পারলে কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনা করে প্রার্থী চূড়ান্ত করতে হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, নির্বাচন ঘিরে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের লোকজন  হামলা মামলা নির্যাতন চালায়। এসব করে বিএনপিকে নির্বাচন থেকে আলাদা করতে চায়। কিন্ত, বিএনপি গণমানুষের দল তাই নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবেই। কোন ষড়যন্ত্রই বিএনপিকে দমিয়ে রাখতে পারবে না।

তিনি বলেন, নির্বাচন হলে সরকার ও ইসির নীল নকশা মানুষের মাঝে পরিস্কার হয়ে ওঠে। সরকারের প্রতি মানুষের বিরূপ মনোভাব গড়ে। এভাবে জনমত গড়ে উঠবে। আজকের জনমত এক দিন জনরোষে পরিণত হবে। তখন সরকার ও আওয়ামী লীগ স্থায়ীভাবে এ দেশ থেকে বিদায় নেবে। এমন পতন এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র।
গত রোববার তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রথম ধাপে ২৫ পৌরসভায় আগামী ২৮ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণের ঘোষিত তফসিল অনুযাযী, মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ ১ ডিসেম্বর, মনোনয়ন বাছাই ৩ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহার ১০ ডিসেম্বর। সব পৌরসভায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। অনুষ্ঠিতব্য পৌরসভা নির্বাচনী এলাকা হচ্ছে- পঞ্চগড় জেলার পঞ্চগড় সদর, ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ, দিনাজপুরের ফুলবাড়ী, রংপুরের বদরগঞ্জ, কুড়িগ্রামের কুড়িগ্রাম সদর, রাজশাহীর পুঠিয়া ও কাটাখালী, সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, পাবনার চাটমোহর, কুষ্টিয়ার খোকসা, চুয়াডাঙ্গার সদর, খুলনার চালনা, বরগুনার বেতাগী, পটুয়াখালীর কলাপাড়া, বরিশালের উজিরপুর ও বাকেরগঞ্জ, মানিকগঞ্জের মানিকগঞ্জ সদর, ঢাকার ধামরাই, গাজীপুরের শ্রীপুর, ময়মনসিংহের গফরগাঁও, নেত্রকোনার মদন, সুনামগঞ্জের দিরাই, মৌলভীবাজারের বড়লেখা, হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ এবং চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড।

আসন্ন ২৫টি পৌরসভা নির্বাচন সামনে রেখে দলীয় মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে ফরম বিতরণ শুরু করেছে বিএনপি। গত মঙ্গলবার গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এ ফরম বিতরণ শুরু হয়, চলবে আগামীকাল রোববার পর্যন্ত। এ সময় দলের কোনো সিনিয়র নেতা উপস্থিত না থাকলেও দলের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন নসুসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

রিয়াজ উদ্দিন নসু বলেন, গুলশান কার্যালয় অথবা সংশ্লিষ্ট জেলা বিএনপি কার্যালয় থেকে কেন্দ্রের সরবরাহকৃত নির্ধারিত আবেদন ফরম পূরণ করে গুলশান কার্যালয়ে জমা দিতে বলা হয়েছে। কেন্দ্র থেকে সরবরাহকৃত বিএনপির মনোনয়নের আবেদন ফরম ব্যতীত অন্য কোনো আবেদন ফরম গ্রহণযোগ্য হবে না বলেও দলের সিদ্ধান্ত রয়েছে। এ কারণে কিছু প্রার্থী গুলশান কার্যালয়ে এসে ফরম সংগ্রহ করলেও বেশিরভাগ জেলা পর্যায়ে থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। এর জন্য মনোনয়ন ফরম কুরিয়ার সার্ভিসে ওইসব এলাকায় পাঠানো হয়েছে। তবে কতজন মনোনয়নপ্রত্যাশী ফরম নিয়েছেন তার সঠিক হিসাব তিনি দিতে পারেননি। 

বিএনপির একাধিক নেতা জানিয়েছেন, নির্বাচনীয় প্রচারণায় নেমে জনগণের কাছে সরকার দুর্নীতির কথা তুলে ধারার একটা সুযোগ আছে। বিএনপি এ সুযোগটাই নিতে চায়। তারা গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় একটা সুষ্ঠু নির্বাচন চায়- এ বার্তাটা মানুষকে জানাতে প্রচারণার সুযোগ পাওয়া যায়। ফলাফল যা-ই হোক এটা বড় বিষয় নয়। দেশের মানুষ জানাতে পারবে বিএনপি নির্বাচনে মাঠে ছিল। দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্বতন্ত্র প্রতীক কিংবা দলীয় প্রতীকে স্থানীয় কোনো নির্বাচনই বর্জন করা হয়নি। স্থানীয় নির্বাচনে কীভাবে দলীয় প্রার্থী বাছাই করা হবে, তার নির্দেশনা ইতিমধ্যে তৃণমূলে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত হলে নির্বাচন কমিশনে পাঠানো চিঠিতে আগের মতোই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরই স্বাক্ষর করবেন।

এদিকে, দলীয় নির্দেশনা পেয়ে বিএনপির তৃণমূল ব্যাপক চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। সম্ভাব্য প্রার্থীদের অনেকেই মাঠে নেমে পড়েছেন। কয়েকটি পৌরসভায় স্থানীয় বিএনপি নেতারা একক প্রার্থী চূড়ান্ত করেছেন। অনেক এলাকায় ভোটারদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষাসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রচার-প্রচারণাও শুরু করেছেন অনেকেই। কেউ কেউ কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করে লবিং-তদবির শুরু করেছেন। তবে বিএনপির দায়িত্বপ্রাপ্তরা মনোনয়ন প্রার্থীদের খোঁজখবর নিয়েই প্রার্থী চূড়ান্ত করবেন।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।