বুধবার ২৭ জানুয়ারি ২০২১ ১৩ মাঘ ১৪২৭

গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যায় ৩ জনের মৃত্যুদণ্ড
জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশ: বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০, ৩:৫০ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

শরীয়তপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনায় তিন জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে শরীয়তপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আব্দুস ছালাম খান এ আদেশ দেন। এছাড়া প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন আদালত।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপ‌জেলার মধ‌্য কোদালপুর গ্রা‌মের মো. মো‌র্শেদ উকিল (৫৬), দাইমী চরভয়রা গ্রা‌মের মো. জা‌কির হো‌সেন মুতাইত (৩৩) ও ডামুড‌্যা উপ‌জেলার চর ‌ঘরোয়া গ্রা‌মের আবদুল হক মুতাইত (৪২)। বাকি ৯ আসামিকে খালাস দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার পর তাদের জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালে ২০ জানুয়ারি রাতে ডামুড‌্যা উপ‌জেলার চরভয়রা উকিলপাড়া গ্রা‌মের খোকন উকিলের স্ত্রী হাওয়া বেগম (৪০) পা‌শের বা‌ড়িতে মোবাইলে চার্জ দ‌ি‌তে গিয়ে নিখোঁজ হন। মো‌র্শেদ, আবদুল হক ও জা‌কির দল বেঁধে হাওয়া বেগম‌কে ধর্ষণ করেন। পরে তাকে শ্বাসরোধে হত‌্যা করা হয়। পরদিন সকালে পু‌লিশ গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন‌্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতপা‌লে পাঠায়। এ ঘটনায় তার স্বামী বাদী হয়ে ডামুড‌্যা থানায় হত‌্যা মামলা ক‌রেন। তদন্ত শেষে ডামুড্যা থানা পুলিশ ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ২০১৯ সালের ৭ অক্টোবর ৯ জনসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ গঠন করা হয়।

দীর্ঘ ২২ মাস ৪ দিন পরে এ রায় দেয় আদালত। মামলায় ৯ জনকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।