শনিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২১ ৯ মাঘ ১৪২৭

বিল গেটসকে টপকে ধনীর তালিকার দুই নম্বরে এলন মাস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশ: মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০, ৮:৩৫ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

সংগৃহীত ছবি।

সংগৃহীত ছবি।

বিশ্বের দ্বিতীয় ধনী হিসেবে উঠে এলেন টেসলার প্রতিষ্ঠাতা এলন মাস্ক। তার সম্পদের পরিমাণ এখন মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের চেয়ে বেশি। তালিকায় এক নম্বরে রয়েছে আমাজন মালিক জেফ বেজোস। তালিকায় ১০ নম্বরে আছেন ভারতের শিল্পপতি মুকেশ আম্বানি।

বিশ্বের কোটিপতিদের তালিকা তৈরি করা ‘ব্লুমবার্গ বিলিওনিয়ার ইনডেক্স’ সোমবার এই খবর দিয়েছে। তারা বলছে, এ বছর বিশ্বের ৫০০ জন কোটিপতির মধ্যে দ্রুত এগিয়ে এসে গেটসকে টপকে তালিকার দুই নম্বরে চলে এসেছেন মাস্ক। বছরের শুরুতে এই তালিকায় ৩৫ নম্বরে ছিলেন মাস্ক।

টেসলার শেয়ারের দাম বাড়ায় এক লাফে দ্বিতীয় অবস্থানে চলে এসেছেন মাস্ক। করোনার মধ্যেই হু হু করে বাড়ছে টেসলা মোটরের শেয়ারের দাম। ফলে তার মোট সম্পদের পরিমাণ বেড়ে হয়েছে ১২ হাজার ৭৯০ কোটি ডলার। একটু পিছিয়ে পড়ে গেটসের সম্পদের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৭৭০ কোটি ডলারে।

এ বছর করোনার মধ্যেও সবচেয়ে বেশি সম্পদ বেড়েছে মাস্কের। এ সময় মাস্ক তার মোট সম্পদ আরও ১০ হাজার ৩০ কোটি ডলার বাড়িয়ে নিতে পেরেছেন। ব্লুমবার্গ বিলিওনিয়ার ইনডেক্সে থাকা ৫০০ কোটিপতির কেউই এ বছর নিজেদের সম্পদ এতটা বাড়াতে পারেননি। টেসলার বাজার মূল্য এখন ৫০ হাজার কোটি ডলার।

গত আট বছরের মধ্যে এ নিয়ে দুইবার নিজের জায়গা হারাতে হলো বিল গেটসকে। প্রথমবার তার জায়গা কেড়েছিলেন বেজোস। গেটস চলে গিয়েছিলেন দুই নম্বরে। এবার গেটসকে তিন নম্বরে পাঠালেন এলন মাস্ক।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।