মঙ্গলবার ১ ডিসেম্বর ২০২০ ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

কম ঘুমিয়েও সকালে সতেজ থাকার কৌশল
লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশ: শুক্রবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২০, ২:২৭ পিএম | অনলাইন সংস্করণ

কম ঘুমিয়েও সকালে সতেজ থাকার কৌশল

কম ঘুমিয়েও সকালে সতেজ থাকার কৌশল

কাজের চাপে হয়তো আপনি রাতে সঠিক সময়ে ঘুমাতে যেতে পারেননি। আর কালের জরুরি মিটিং বা কোনো অনুষ্ঠানে আপনাকে যেতেই হবে। এমতাবস্থায় সকালে ঘুম থেকে উঠলে চেহারায় ক্লান্তি ও ঘুম ঘুম ভাব থাকতে পারে।

রাতে দেরিতে বিছানায় গিয়েও সকালে নিজেকে সতেজ দেখাতে বেছে নিতে পারেন কিছু কৌশল।

জীবনযাপনবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে নির্ঘুম রাতের ক্লান্তিভাব দূর করার উপায় সম্পর্কে জানানো হলো

১. চোখের ফোলাভাব কমাতে রেফ্রিজারেটরে রেখে চামচ ঠাণ্ডা করে নিন। ঠাণ্ডা চামচ চোখের নিচের চারপাশে আলতোভাবে ধীরে ধীরে ঘষে নিন। ঠাণ্ডা প্রয়োগ কয়েক মিনিটের মধ্যে চোখের ফোলা ভাব কমাতে সাহায্য করে।

২. ঘুমের ঘাটতিভাব কমাতে সকালে ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করুন। ঠাণ্ডা পানিতে গোসল ত্বককে উজ্জ্বল ও সতেজ দেখাতে সহায়তা করে।

৩. চেহারার ক্লান্তিভাব দূর করতে ত্বকের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। ঘুমের স্বল্পতার কারণে ত্বকের আর্দ্রতা কমে যায়। ফলে ত্বক দেখায় মলিন।

৪. শরীর চাঙ্গা রাখার মতো ত্বককেও চাঙ্কা রাখতে ক্যাফেইন ব্যবহার করুন। ত্বক আর্দ্র রাখতে ভিটামিন ‘সি’ সিরাম বা ক্যাফেইন সমৃদ্ধ অন্য কোনো উপাদান ব্যবহার করুন। এটা ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়।

৫. ত্বকে স্ক্রাব ব্যবহার রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় ও ত্বক ভালো থাকে। ‘স্ক্রাবিং’ কেবল ত্বককে উজ্জ্বল করে না পাশাপাশি ত্বককে আগের চেয়ে অনেক বেশি সতেজ করতেও সহায়তা করে।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »






সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।