মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৬ আশ্বিন ১৪২৭

শাকিব-অপুকে নিয়ে গাইলেন পুত্র জয়
বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশ: রোববার, ৫ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০০ এএম | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকাই সিনেমার শীর্ষনায়ক শাকিব খান ও নায়িকা অপু বিশ্বাসের একমাত্র সন্তান আব্রাহাম খান জয় আনমনে গেয়ে চলেছে শিশুদের খুব পছন্দের ছড়া গান ‘মাম্মি অ্যান্ড ড্যাডি’।  মুঠো ফোন ধারণ করে সেই ভিডিও শুক্রবার সন্ধ্যায় ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন অপু বিশ্বাস। আর জয়ের আধো আধো বোলের এই ছড়া গান শুনেই জয়ের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করছেন নেটিজেনরা। কেউ বলছেন, অনেক বড় হয়ে গেছে জয়। আর কেউ কেউ আদর প্রকাশ করছেন নানা ইমোজির মাধ্যমে। বাংলাদেশের স্টারকিডদের নিয়ে তেমন আলোচনা হয় না বলা চলে। তবে শাকিব খান-অপু বিশ্বাসের সন্তান জয়কে নিয়ে বেশ মাতামাতি দেখা যায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক জনপ্রিয় জয়। ওর গান এখন ভাইরাল। এই জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়েই চলছে।
২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি হাসপাতালে জয়ের জন্ম হয়। এখন তার নামে সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একাধিক ফ্যানপেজ রয়েছে। রয়েছে অসংখ্য আইডি। ইনস্টাগ্রামেও এই শিশু তারকার ভক্তের অভাব নেই। তার ব্যক্তিগত আইডির পাশাপাশি ইনস্ট্রাগ্রামে তার নামে গ্রুপও আছে।
জয়কে এখন সবাই চেনে। নেট দুনিয়ার বড় তারকা সে। এ বছর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার ‘ইন্টারন্যাশনাল স্কুল ঢাকা’তে প্লে-গ্রুপ পার করবে জয়। সেখানেও বেশ জনপ্রিয় সে। মাঝে মধ্যেই জয়ের পড়ালেখা, ছবি আঁকা, খেলাধুলার ছবি পোস্ট করেন নিজের ফেসবুক ওয়ালে ও ইনস্টাগ্রামে। সেই ধারাবাহিকতায় এবার প্রকাশ করেছে জয়ের এই নতুন ভিডিও।

« পূর্ববর্তী সংবাদপরবর্তী সংবাদ »



সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক পঠিত

এই ক্যাটেগরির আরো সংবাদ

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন

প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।
ফোন: ৯৮৫১৬২০, ৮৮৩২৬৪-৬, ফ্যাক্স: ৮৮০-২-৯৮৯৩২৯৫। ই-মেইল : e-mail: [email protected], [email protected]
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি: বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওয়াকিল উদ্দিন
সম্পাদক: রফিকুল ইসলাম রতন
প্রকাশক: স্বদেশ গ্লোবাল মিডিয়া লিমিটেড-এর পক্ষে মোঃ মজিবুর রহমান চৌধুরী কর্তৃক আবরন প্রিন্টার্স,
মতিঝিল ঢাকা থেকে মুদ্রিত ও ১০, তাহের টাওয়ার, গুলশান সার্কেল-২ থেকে প্রকাশিত।